Quota reform or cancellation?

The quota has been annulled- this statement is misleading.

Please watch the Prime Minister’s statement between 15 min 54 sec and 16 min 15 sec carefully.

During the question-answer hour at the Parliament the PM has not announced that the quota system would be annulled. She has said what she said before. But, this time the language is somewhat different. She said this time that the cabinet secretary has been assigned to work on the issue involving those who are required before taking a decision on this issue of quota. So, none should assume that the quota system has been annulled.

So, it has not been like how we are used to hear an official announcement in the case of an actual annulment of the quota system. However, in an angry tone it has been told: “There’s no need of any quota.”

Check it out if I got it right.

কোটা বাতিল হয়েছে এই বক্তব্য মিসলিডিং।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের ১৫ মিনিট ৫৪ সেকেন্ড থেকে ১৬ মিনিট ১৫ সেকেন্ড অংশটুকু ভালো করে দেখুন।

সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রী কোটা বাতিলের কোন ঘোষণা দেন নাই। আগে যা বলেছিলেন তাই বলেছেন; তবে ভিন্ন টোনে। তিনি বলছেন, ক্যাবিনেট সেক্রেটারিকে তিনি দায়িত্ব দিয়েছেন ক্যাবিনেট সেক্রেটারি সংশ্লিষ্ট যাদেরকে দরকার তাদেরকে নিয়ে কাজ করবেন এবং কোটা বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। তাই কোটা বাতিল হয়েছে এমন ঘোষণা দেয়া হয়েছে, তা ভাবার কোন কারণ নাই।

তাই কোটা বাতিল হয়েছে, একটা সরকারি আদেশ যেমন হয় তেমন কোন ঘোষণা এটা হয় নাই।
যদিও রাগ করে বলার মত করে বলা হয়েছে “কোটা থাকার দরকার নাই”।

আমি ঠিক বুঝেছি কিনা, সেটা আপনারাও চেক করুন।

 

Share

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Feeling social? comment with facebook here!

Subscribe to
Newsletter