June 7, 2020

This is yet another example of what sort of ridiculous incidents are taking place in Bangladesh these days. The government has blocked access to thousands of gateways to porn sites.

Their argument is, young people are being led astray by those sites. But, I doubt if they can actually block the porn sites this way when anyone via VPN can get access to them. Who has prepared this list? The government did not set up any expert committee to identify those sites, we know. They did not even make public of the list of the sites which have been blocked. But the readers and bloggers have come to know that they included Google Books and Bangladesh’s perhaps most popular blog Somewhereinblog to the list of porn sites and blocked them. God knows what else among other important sites have been identified as porn sites by the government.

They are identifying Somewhereinblog and Google Books as porn sites and their forces are branding ordinary civilians as militants, before targeting them in extrajudicial killings. Perhaps, they will unblock these important sites one day. But, they will never be able to return the lives of those who are being tagged with the label of ‘militant’ or ‘terrorist’ and being killed in so-called crossfire.

Click here to read original Facebook post

বাংলাদেশে কি পরিমাণ তুঘলকি কাণ্ড ঘটে এই সংবাদটা হচ্ছে তার জ্বলন্ত প্রমাণ। তাদের যুক্তি এসব পর্ণ সাইট দেখে অল্পবয়সীরা উচ্ছন্নে যাচ্ছে। কিন্তু আজকের দিনে ভিপিএন আছে যেখানে সেখানে কি এই গেটওয়ে অ্যাক্সেস বন্ধ করা কাজ করে?

কারা এই পর্ন সাইটের তালিকা তৈরি করেছে? এই সিদ্ধান্তগুলো কি কোন বিশেষজ্ঞ কমিটি নিয়েছে? তালিকা কি কোন বিশেষজ্ঞ কমিটি তৈরি করেছে? না করেনি। এই তালিকা প্রকাশ্যও করা হয়নি। কিন্তু বাংলাদেশের বই পড়ুয়া আর ব্লগারেরা জানতে পেরেছেন বাংলাদেশের প্রধান বাংলা ব্লগ সামহোয়্যারইন এবং গুগল বুক-কেও পর্ণ সাইটের তালিকায় ঢুকিয়ে সেই সাইটগুলোও ব্লক করা হয়েছে। আল্লাহ জানেন আর কত জরুরী সাইট ইনাদের পর্ণ সাইটের তালিকায় আছে।

সামহোয়্যারইন আর গুগল বুক যাদের কাছে পর্ণ সাইট তাদের মতো সরকারি বাহিনীই তো মানুষকে জঙ্গি ট্যাগ দিয়ে বিচারহীন ভাবে খুন করে। বন্ধ সাইট হয়তো আবার খুলে দিয়ে এই বেকুবি শোধরানো যায়, কিন্তু এভাবেই ট্যাগ দিয়ে কথিত ক্রসফায়ারে খুন করা মানুষ গুলো তো আর ফিরবে না।

লেখাটির ফেইসবুক ভার্সন পড়তে চাইলে এইখানে ক্লিক করুন

 

Add comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *