For a photo session, Awami leaders fake distribution of relief

During the misrule of the Awami League not only the moral standard of people in Bangladesh have fallen, but also they have lost their common sense. During the crisis following the outbreak of COVID-19 one class of influential people are stealing relief provisions meant for free distribution among the poor and hungry. Some people have also begun showing off their selfies with well-known political leaders shot during the delivery of food relief. They seek to show how they are connected to high places. We have also seen selfies of PPE-clad bank managers that they shared on Facebook. Wearing PPEs, which are actually meant for use by the health workers treating the COVID-19 patients, political leaders were found distributing relief materials.

Look at this video clip. These men are staging the distribution of relief to the poor for the camera. After one person is being handed out a relief packet and the scene has been photographed, they are taking back the packet from the person. The same packet is being handed out to another person to enact another scene for the camera. On the background, we can see the photo of Awami League chief Sheikh Hasina. The logo of the Sheikh Mujib’s 100th birth anniversary is also not missing from the scene.

There are many who send aid to Bangladesh from outside. Many among you also pay tax to the government with the hope that it would be used towards the welfare of the poor. I am sure this video clip will make you understand how your contribution to the country is going down the drain and the Awami League leaders and workers are looting it. By looting public fund they are becoming rich and preparing to move to the Western countries to spend the rest of their life lavishly. Do you really want these people to loot your contribution to the country?

Click here to read the original Facebook post

বাংলাদেশে আওয়ামী অপশাসনে মানুষের শুধু নৈতিক অধঃপতনই নয় সাধারণ কাণ্ডজ্ঞানও ধ্বংস হয়েছে। করোনা কালে ত্রাণ দেয়া নিয়ে ব্যপকহারে চুরি তো আছেই। এর পাশাপাশি এক ধরণের উদ্ভট প্রদর্শনবাদীতা শুরু হয়েছে। যা রাজনৈতিক নেতাদের সাথে সেল্ফি তুলে সেটা নিজেদের ক্ষমতার প্রতীক হিসেবে জাহির করা থেকে ব্যাংক কর্মকর্তার পিপিই পরে সেল্ফি তুলে ফেইসবুকে শেয়ার করা বা ত্রাণ কাজে পিপিই ব্যবহার করা পর্যন্ত পৌঁছেছে ।

এই ভিডিও ক্লিপে দেখুন, ত্রাণ দেয়ার অভিনয় করা হচ্ছে। আর সেইটার ছবি নেয়া হচ্ছে। ছবি নেয়া শেষ হলে ত্রাণের কথিত প্যাকেট কেড়ে নিয়ে আরেকজনকে সেটা দেয়ার অভিনয় করা হচ্ছে। পিছনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার ছবি ও মুজিব বর্ষের লোগো শোভা পাচ্ছে।

বাংলাদেশকে যারা ঋণ সাহায্য দেন, জনগণের ট্যাক্সের সম্পদ দিয়ে যারা বাংলাদেশের দুর্গত মানুষদের বাঁচাতে চান, আপনারা দেখুন, আপনাদের জনগণের ট্যাক্সের পয়সা এভাবেই জলে পড়ছে । আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা লুটেপুটে সম্পদশালী হচ্ছে। তারা সেই সম্পদ নিয়ে পশ্চিমে পাড়ি দিবে আরাম আয়েশের জন্য। আর আপনাদের সমাজকে কলুষিত করবে। আপনাদের কি এদের সাহায্য করা উচিৎ?

লেখাটির ফেইসবুক ভার্সন পড়তে চাইলে এইখানে ক্লিক করুন

Share

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Feeling social? comment with facebook here!

Subscribe to
Newsletter