Want to get latest blog from Pinaki Bhattacharya?
We will send you emails!
Subscribe!

Actually we will not spam you and keep your personal data secure

July 11, 2020

I know my Hindu brothers and sisters usually do not bother to read any statement issued by Hefajat e Islam. I request you to read the HeI has issued on the Rangpur communal incident. If you are not biased against this non-political Islamic organisation, I am sure, this statement will change your impression about HeI.

“We have to stay alert in the case of any communal incident and related law and order issue. Incitements will pour in from many sides. But, we should never take the law into our hands,” The HeI statement said.

“As the majority community of the country it’s the duty of the Muslims to cooperate in the best way so that people from other religious communities remain safe. Muslims should help them in all ways possible.”

Like some Hindus became victims in the Rangpur case, many Muslims and Christians often become targets of religious violence in India. Could you show me one Hindu version of such HeI statement issued by a Hindu religious leader following an incident in which Muslims or Christians were attacked by Hindu religious fanatics in India? I am sure you will not find a Hindu version of this HeI statement in India.

Yet, you will keep calling Hefajat a anti Hindu fanatic organisation. You don’t know who your friends. This is unfortunate!

Click here to read the original Facebook post

হিন্দু ভাইবোনেরা এইবার একটু কষ্ট করে হেফাজতের বিবৃতিটা পড়েন। কারণ আমি জানি আপনারা হেফাজতের বিবৃতি হয় ভালো করে পড়ে দেখার প্রয়োজন মনে করেন না অথবা খুব বিতৃষ্ণা নিয়ে দেখেন। আপনি যদি এই অরাজনৈতিক ইসলামিক সংগঠনের প্রতি নেতিবাচকভাবে বায়াসড না হন, তাহলে আমি নিশ্চিত এই বিবৃতিটা পড়ার পরে তাদের সম্পর্কে আপনার ধারণা বদলাবে। তাঁরা রংপুরের ঘটনার প্রতিবাদে বলছেন,

“যে কোন সাম্প্রদায়িক ও শান্তি-শৃঙ্খলার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। যত উস্কানি আসুক না কেন, কোনো অবস্থাতেই কাউকে আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়া যাবে না।” শুধু তাই নয় তাঁরা এটাও বলছেন, “এদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানদের কর্তব্য হচ্ছে অপরাপর গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের মানুষের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে পূর্ণ সহযোগিতা করা, তাদের যে কোন প্রয়োজনে সহযোগিতা নিয়ে পাশে দাঁড়ানো।”

হিন্দুরা রংপুরে যে নির্যাতনের শিকার হয়েছে, ঠিক একই রকমভাবে ইণ্ডিয়াতে মুসলমান ও খ্রিস্টানেরা ধর্মীয় সহিংসতার শিকার হয়েছে বহুবার। আপনারা এক কাজ করেন, শুধু এইটার একটা হিন্দু ভার্শন খোজেন ইন্ডিয়াতে। যেখানে ধর্মোন্মাদ হিন্দুদের হাতে ইন্ডিয়াতে মুসলমান নিগ্রহ হলে ইন্ডিয়ার সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক হিন্দু সংগঠন থেকে এমন বিবৃতি এসেছে কিনা কখনো। আমি নিশ্চিত আপনারা এমন বিবৃতি ইণ্ডিয়া থেকে দেখাতে পারবেন না।

আর আপনারা বলেন এই হেফাজত হিন্দু বিদ্বেষী!!! কাকে বন্ধু জ্ঞান করা যায় সেটাও আপনারা বুঝলেন না এতোদিনে। আফসোস।

লেখাটির ফেইসবুক ভার্সন পড়তে চাইলে এইখানে ক্লিক করুন

Add comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *