Many departments of the fraudulently elected government are looting public money

PM Sheikh Hasina has taken a serious note of the case in which a hospital or the health authority claimed to have spent 20 crore takas ( US$ 2.35 million) to pay for a month’s food bill for 150 or 200 doctors.

In Bangladesh, ballot boxes get illegally stuffed at night even before polling starts. What’s wrong if the monthly food bill for 150 or 200 people is shown as 20 crore takas?

You stole votes or rigged the general election massively in favour of your party. In the same style, they are also stealing public money to run hospitals. I wonder why the stealing by the hospital or health authorities surprises you? This is a very small amount they are stealing. The world is shocked to see how you resort to stealing to stay on in power.

Hours after stealing votes at night, you proclaim in the morning, ‘People have voted for my party overwhelmingly’. Can you show us another PM anywhere in the world who can match your skill of telling lies so shamelessly?

Click here to read the original Facebook post

ভোট শুরু হওয়ার আগেই যে দেশে ব্যালট বাক্স ভরে যায় সেই দেশে এক মাসে দেড়শো বা দু’শো থাকা খাওয়ার বিল বিশ কোটি হলে কী সমস্যা?

আপনি যেমন ভোট চুরি আর ভোট প্রতারণা করে প্রাইম মিনিস্টার হইছেন এরাও তেমন চুরি আর প্রতারণা করে হাসপাতাল চালায়। আর আপনি হাসপাতালের চুরি দেখে অবাক হচ্ছেন? এইটা তো সামান্য চুরি। হা, হা, হা, সারা দুনিয়া তো আপনার চুরি দেখে অবাক হয়।

রাতে দেশজুড়ে ভোট চুরি করে পরদিন ভালো মানুষের মতো, “জনগণ আমারে ভোট দিছে” এইটা বলার নির্লজ্জ দক্ষতা দুনিয়াতে আর কোনও প্রধানমন্ত্রী যে দেখাইতে পারে নাই তা জানেন তো?

লেখাটির ফেইসবুক ভার্সন পড়তে চাইলে এইখানে ক্লিক করুন

Share

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Feeling social? comment with facebook here!

Subscribe to
Newsletter