We will keep the flaming torch of Tutulbhai’s dream alight forever

Communist leader Dr Mizanur Rahman Tutul was shot dead in a so-called crossfire in Raninagar of Naogaon district at around the midnight of July 26, 2008, after he had been arrested.

Tutulbhai was five years my senior in the medical college. We used to stay in the same hostel. Tutulbhai was a man of personality. He was respected by everyone around. Often we found him engrossed in his own thoughts as he walked around alone. We used to greet him with salaams before walking past him. He used to smile back affectionately.

After finishing his medical education Tutulbhai returned to his village. He used to work for the party staying in the village. His only crime was that he was in politics and dreamt of revolution.

Killer RAB of Bangladesh murdered Tutulbhai in an extrajudicial action. Communist leaders Mofakkhar Chowdhury and Siraj Sikdar were killed in an identical style.

No Leftist leader condemned the killing of Tutulbhai. But the history of Bangladesh will not forget him. I will never forget him, too. His sparkling pair of eyes will always keep flashing before me. I will always remember how he dreamt of the revolution until his death.

Tutulbhai dreamt of justice for equality. It was that ‘crime’ for which he was killed. I will join hands with others so that the flame of Tutulbhai’s dream never dies.

Click here to read the original Facebook post

২০০৮ সালের ২৬শে জুলাই মধ্যরাতে কমিউনিস্ট নেতা ডা মিজানুর রহমান টুটুলকে গ্রেফতারকৃত অবস্থায় নওগাঁ জেলার রাণীনগরে ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করা হয়।

টুটুল ভাই আমার মেডিক্যাল কলেজে আমার পাঁচ বছরের সিনিয়র ছিলেন। আমরা একই হোস্টেলে থাকতাম। দিব্যকান্তি টুটুল ভাই ছিলেন সকলের শ্রদ্ধার পাত্র। এক মনে কী যেন ভাবতেন আর হেঁটে যেতেন। আমরা সালাম দিয়ে উনার প্রবল ব্যক্তিত্বের সামনে মাথা নিচু করে পাশ কাটিয়ে যেতাম। তিনি স্মিত হাসির স্নেহপ্রশ্রয়ে আমাদের সিক্ত করতেন।

শিক্ষা জীবন শেষে টুটুল ভাই গ্রামে ফিরে গিয়েছিলেন। সেখানেই পার্টি সংগঠনের কাজ করতেন। টুটুল ভাইয়ের অপরাধ কী ছিলো? রাজনীতি করা? বিপ্লবের স্বপ্ন দেখা?

বাংলাদেশের খুনে র‍্যাব টুটুল ভাইকে বিনা বিচারে হত্যা করেছে। একইভাবে হত্যা করা হয়েছে কমিউনিস্ট নেতা মোফাখখার চৌধুরীকে। একইভাবে হত্যা করা হয়েছিলো নন্দিত কমিউনিস্ট নেতা সিরাজ শিকদারকে।

বাংলাদেশের কোন বামপন্থী এই ক্রস ফায়ারে হত্যার নিন্দা করেনি। কিন্তু ইতিহাস তাদের মনে রাখবে। আমি টুটুল ভাইকে মনে রাখবো। আমি উনার উজ্জ্বল সেই চোখ দুটোর কথা মনে রাখবো। আমি তার আমৃত্যু বিপ্লব পিপাসার কথা মনে রাখবো।

যেই সাম্যের ইনসাফের মর্যাদার সমাজের স্বপ্ন দেখার অপরাধে টুটুল ভাইকে হত্যা করা হয়েছে। সেই স্বপ্নের মশাল জ্বালিয়ে রাখার কাজে আমি অন্য সকলের সাথে হাত লাগাবো।

লেখাটির ফেইসবুক ভার্সন পড়তে চাইলে এইখানে ক্লিক করুন

Share

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Feeling social? comment with facebook here!

Subscribe to
Newsletter