Youth wing activists of ruling party drive electric drill on the legs of man

Youth wing activists of ruling party drive electric drill on the legs of man
Pinaki Bhattacharya

Here is a news item which provides a snapshot of how the ruling party and its followers have turned Bangladesh into a cruel and barbaric country.

Members of Juboleague, youth wing of the ruling Awami League party, drove a drill onto the legs of a man who refused to pay donation to them. The Juboleague goons tortured and wounded the man in front of his father. Torture of a son in front of the father, using a drill, shows the savage and sadist nature of the youth wing of the ruling party.

The newspaper which has published this news happens to be a supporter of the current regime. Its former editor, who died sometime ago, had said once that Sheikh Hasina deserved to get the Nobel Prize. “Proper lobbying should be underway to ensure the Nobel Prize,” he said.

Quite expectedly the newspaper identifies the culprits in this case as “so-called Juboleague” activists. So, according to this news report it is not clear whether the perpetrators are actually Juboleague members. This way some newspapers, news portals and TV channels in Bangladesh seek to dilute the crimes committed by the pro-government groups.

Click here to read the original Facebook post

বাংলাদেশকে শাসকদল আর তার সাঙ্গোপাঙ্গরা কেমন বর্বর আর নৃশংস জনপদে পরিণত করেছে এই সংবাদটি তার একটা খণ্ডচিত্র।

শাসকদলের যুব সংগঠন যুবলীগের নেতা চাঁদা না পেয়ে এক যুবকের দুই পায়ে ইলেকট্রিক ড্রিল দিয়ে ছিদ্র করে দিয়েছে। এই নৃশংস ঘটনা ঘটানো হয়েছে যুবকের পিতার সামনেই। পিতার সামনে পুত্রের পায়ে ড্রিল দিয়ে ছিদ্র করে দেয়াটা শুধু নির্মম আর নৃশংসই নয় তা এই যুব সংগঠনের কর্মীদের স্যাডিস্ট মনোবৃত্তির পরিচয়ও বটে।

এই পত্রিকাটি সরকারদলের সমর্থক। এই পত্রিকার প্রয়াত সম্পাদক প্রধানমন্ত্রীর সাংবাদিক সন্মেলনে শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেছিলো, আপনার নোবেল প্রাইজ প্রাপ্য, এই প্রাইজ যেন নিশ্চিত হয় তাই এখন থেকেই লবিং করা প্রয়োজন।

এই পত্রিকায় সংবাদটি পরিবেশনের সময় অপরাধীর রাজনৈতিক পরিচয় দেবার ক্ষেত্রে “কথিত” শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে। তার অর্থ হচ্ছে, তাকে যুবলীগ নেতা হিসেবে চিনলেও সে আসলে যুবলীগ করে কিনা সন্দেহ আছে, তা বলা হয়েছে। বাংলাদেশে আজকাল এভাবেই অনেক সংবাদপত্র, নিউজ পোর্টাল ও টিভি চ্যানেল সরকারদলের অপরাধ ও বর্বরতাকে লঘুভাবে উপস্থাপন করে।

লেখাটির ফেইসবুক ভার্সন পড়তে চাইলে এইখানে ক্লিক করুন

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Comment